ইন্দোনেশিয়ার যুবক কী ক্লুভার-বচি সিন্ড্রমে আক্রান্ত?

ইন্দোনেশিয়ার যুবক কী ক্লুভার-বচি সিন্ড্রমে আক্রান্ত?

ইন্দোনেশিয়ার যুবক কী ক্লুভার-বচি  সিন্ড্রমে আক্রান্ত?
ইন্দোনেশিয়ার যুবক যিনি রাইচ কুকারকে বিয়ে করেছেন

ক্লুভার-বচি সিন্ড্রম নামক একটি মানসিক ব্যাধি রয়েছে। এ রোগে আক্রান্তরা সাধারণত জড় বস্তুর প্রতি সেক্স ফিল করে। এমনকি জড়বস্তু খাওয়ার জন্য তাদের ভেতর তীব্র একটি তাড়না তৈরি হয়। এ রোগটি আসলে মেমরি লসের সাথে সম্পৃক্ত। এরা ব্যক্তি ও বস্তুর মধ্যে পার্থক্য তৈরি করতে পারেনা। এ রোগটি নির্ণয় করা অত্যন্ত কঠিন। বিশেষ করে কারো মস্তিষ্কের টেম্পোরাল লোব মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হলে এ মানসিক পরিস্থিতি দেখা দেয়। এ ধরণের ব্যক্তিরা গাড়ি, বৃক্ষ, বই, খাতা অথবা মাইক্রোওভেনের সাথেও সেক্স করার চেষ্টা করতে পারে। ব্রেন ইনফেকশন, স্ট্রোক, ব্রেন ইনজুরি অথবা ব্রেন ক্ষয়ের কারণে এ সমস্যাটি দেখা দিতে পারে। সাম্প্রতিক ইন্দোনেশিয়ার এক যুবক রাইচ কুকারকে আনুষ্ঠানিক ভাবে বিয়ে করেছে বলে টাইমস অব ইন্ডিয়া প্রতিবেদন প্রকাশ করেছিল। আবার বিয়ের চারদিন পর সে নাকি রাইচ কুকারকে ডিভোর্স করে! সাইকোলজিক্যাল ডেটা স্টাডি করে যেটা বোঝা যায়, এ ব্যক্তি ব্রেন স্ট্রোক অথবা মস্তিষ্কে চরম কোনো আঘাতের কারণে টেম্পোরাল লোব হারিয়ে ফেলেছে। যার ফলে সে___কে তার প্রেমিকা আর কে তার প্রেমিকা নয়___ এ সুক্ষ্ম পার্থক্যটি করতে পারছেনা। হয়তো তার ব্রেন কনফিউশড থাকার কারণে সে ভুল করে প্রেমিকা ভেবে রাইচ কুকারকে বিয়ে করে ফেলে এবং পরে হয়তো সে তার ভুল বুঝতে সমর্থ হয়। তার স্ত্রী কহিরোল নাকি রান্না ছাড়া অন্য কোনো কাজ করতে পারেনা আর এ জন্যই তাদের এই সম্পর্ক বিচ্ছেদ! আপনাদের মতামত কী? এ ব্যক্তি ভাইরাল হওয়ার জন্য অভিনয় করেছে? নাকি তার টেম্পোরাল লোবে কোনো সমস্যা? অথবা অন্যকিছু আরো পড়ুন- কেনো এত একাকীত্ব?

ইন্দোনেশিয়ার যুবক কী ক্লুভার-বচি  সিন্ড্রমে আক্রান্ত?

Reference

hsbd bg