আইনস্টাইনের মস্তিষ্কের পরকাল!

Last updated:
What Happened To Einstein's Brain After His Death? - HistoryExtra
যে ব্যক্তি আইনস্টাইনের ব্রেন চুরি করেছিলেন!

মহাবিশ্বের সর্বশ্রেষ্ঠ ব্রেন কানেক্টম সম্ভবত আইনস্টাইন। আইনস্টাইনের মৃত্যুর পর বিজ্ঞানীরা তার মস্তিষ্কের একটি সিক্রেট উদ্ভাবন করতে চেয়েছিলেন আর সেটা ছিলো তার প্রতিভার সাথে সম্পৃক্ত কর্টেক্স। আইনস্টাইন কেনো জিনিয়াস? তিনি কি জেনেটিক্যাল লেবেল থেকেই জিনিয়াস না কি পরিবেশের সাথে ব্যাক্তিগত দ্বন্ধই তাকে জিনিয়াস করে তুলেছে? বিজ্ঞানী মিচিও কাকু মনে করেন,  আইনস্টাইন কোনো Noun নয়, আইনস্টাইন মানেই জিনিয়াস। প্রিন্সটন হসপিটালের ড.থমাস হার্বে আইনস্টাইনের উপর একটি অটোপসি করেছিলেন, তার পরিবারের সকলের অজান্তে যিনি আইনস্টাইনের মস্তিষ্ককে সংরক্ষণ করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন। তিনি মনে করেছিলেন সম্ভবত আইনস্টাইনের মস্তিষ্ক গবেষণা করে তিনি তার প্রতিভার রহস্য উন্মোচন করতে পারবেন।ড. হার্বে প্রতিজ্ঞা করেছিলেন তিনি গবেষণার পর আইনস্টাইনের মস্তিষ্কের উপর পেপার প্রকাশ করবেন কিন্তু তিনি ব্রেন স্পেশালিস্ট ছিলেন না, এটাকেই তিনি পরে অজুহাত হিসেবে ব্যবহার করেছিলেন। আইনস্টাইনের ব্রেনকে formaldehyde পরিপূর্ণ দুটি ম্যাসন জারে রাখা হয়েছিলো তারপর সেগুলিকে স্থাপন করা হয়েছিলো সাইডার বক্সে। আইনস্টাইনের মস্তিষ্ককে তিনি ট্যাকনিশিয়ানের মাধ্যমে ২৪০ টুকরো করেন এবং যে সকল বিজ্ঞানী আইনস্টাইনের ব্রেন নিয়ে গবেষণা করতে আগ্রহী তাদের কাছে মস্তিষ্কের টুকরোগুলি পাঠানোর সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন। mayonnaise container এর ভেতর এক টুকরো পাঠিয়েছিলেন বার্কেলের একজন বিজ্ঞানীর কাছে। চল্লিশ বছর পর ড.হার্বে একটি টুপারওয়ান কন্টেইনারের ভেতর আইনস্টাইনের মস্তিষ্ককে তার গ্রেন্ডসনদের কাছে ফিরিয়ে দেয়ার উদ্দেশ্যে নিয়ে আসেন কিন্তু তার গ্র‍্যান্ডডটার ইভলিন সেটাকে গ্রহণ করতে অস্বীকৃতি জানান।

The Mystery of Albert Einstein's Stolen Brain

যে কেউ প্রত্যাশা করেছিলো আইনস্টাইনের ব্রেন সাধারণ মানুষের মস্তিষ্কের অনেক উপরে এবং হয়তো তার মস্তিষ্কে এমন কিছু অংশ ছিলো যা অন্যদের চেয়ে বড়। কিন্তু পরবর্তীতে তারা আইনস্টাইনের মস্তিষ্কের যতটুকু পার্থক্য খুঁজে পেলেন তা ছিলো একেবারেই নিতান্ত। তবে আইনস্টাইনের মস্তিষ্কের কিছু নির্দিষ্ট অংশ যেমনঃ angular gyro ছিলো অন্যদের চেয়ে বড়। তার উভয় হেমিস্ফিয়ারের inferior parietal regions ছিলো অপেক্ষাকৃত প্রশস্ত ।

লক্ষ্যনীয়ভাবে মস্তিষ্কের এ অংশগুলি এবস্ট্রাক্ট চিন্তা,সিম্বল এবং ম্যাথমেটিক্সের সাথে জড়িত। কিন্তু আইনস্টাইনের প্রতিভা সম্পর্কে যখন তাকে ব্যাক্তিগতভাবে প্রশ্ন করা হয়েছিলো তিনি বলেছিলেন, “I have no special talents.… I am only passionately curious.”। আইনস্টাইন নিজেই বলেছিলেন,আমি আমার সহপাঠীদের সাথে গণিত নিয়ে রীতিমতো স্ট্রাগল করেছিলাম। কিন্ত প্রশ্ন হলো কোনো তিনি আইনস্টাইন? মিচিও কাকু বলেন, আইনস্টাইন অধিকাংশ সময় চিন্তা করতেন ,থট এক্সপেরিমেন্টের ভেতরেই তার অধিকাংশ সময় কাটতো, তিনি তাত্বিক পদার্থবিজ্ঞানী ছিলেন, এক্সপেরিমেন্টাল নয়, তার মস্তিষ্ক কন্টিনিউয়াসলি ফিউচার সিমুলেট করতো, তার মস্তিষ্কই ছিলো তার ল্যাব। আইনস্টাইন নিজেই বলেছিলেন,“The true sign of intelligence is not knowledge, but imagination.”। মিচিও কাকু এ উক্তির উপর মন্তব্য করে বলেন, ইমাজিনেশন মানে হলো জানার জগতকে শাট ডাউন করে অজানার জগতে প্রবেশ।

The mystery behind the stolen brain of Albert Einstein genius

 

 

আইনস্টাইনের মস্তিষ্কের স্ট্রাকচার; তথ্যসুত্র-

 

 

আমাদের আরো কিছু আর্টিকেল পড়ুন;

hsbd bg