বিংশ শতকের বিশ্বের বিখ্যাত ব্যক্তিদের মধ্যে সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য ব্যক্তি ছিলেন মানবতাবাদী এবং বিজ্ঞান ও গণিত শাস্ত্র বিশারদ এবং দার্শনিক ব্যক্তিত্য বার্ট্রান্ড রাসেল ৷ ১৯৫০ সালে তিনি সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার লাভ করেন এবং পরে বৃটেনের সর্বোচ্চ বেসামরিক উপাধি ‘ অর্ডার অব মেরিট ’ ও তাকে প্রদান করা হয় ৷ তবে প্রথম বিশ্বযুদ্ধের পর যুদ্ধবিরোধী বিশ্বজনমত গঠনে নিজের মতামত প্রকাশ করে নিবন্ধ লিখার অপরাধে ১৯১৮ সালে দণ্ডিত হয়ে কারাভোগ করতে হয়েছে তার ৷ কিত্তু বার্ট্রান্ড রাসেলের জ্ঞানের গভীরতা ছিল অতুলনীয় ও অপরিমেয় ৷ তার রচিত বিশ্ব বিখ্যাত গ্রন্থ সমূহের অন্যতম ছিল Why I am not a Christian গ্রন্থটি ৷ রাসেল একজন মানবতাবাদী ব্যক্তিও ছিলেন ৷ তাই বিশ্বব্যাপী সহিংসতা , অন্যায় ,অবিচার , বৈষম্য , শাসকের হাতে শাসিতের অত্যাচার ,উৎপীড়ন ,শোষণ ,বঞ্চনা ; ব্যাক্তিমানুষের অজ্ঞতা , কুসংস্কার , ধর্মান্ধতা ও যুক্তিহীনতার বিরুদ্ধে তিনি কলম ধরেছেন এবং উচ্চকণ্ঠে এসবের প্রতিবাদ করেছেন এবং নিজেও ব্যক্তিগতভাবে সক্রিয় ভূমিকা পালন করেছেন ৷

কিত্তু ব্যক্তিগত দাম্পত্য জীবনে তিনি প্রথম দিকে শান্তি পান নাই ৷ ৮০ বছর বয়সে তিনি যখন ৪র্থ বিয়ে করেন তখন থেকে পরবর্তি ১৮ বছর তিনি সংসার জীবনে যথেষ্ট সুখ ও শান্তিতে ছিলেন ৷এরই প্রেক্ষাপটে তার ঐ স্ত্রী এডিথের প্রতি ভালবাসা প্রকাশ করে একটি কালজয়ী কবিতা লিখে গেছেন ৷ এই কবিতাটি দিয়েই তার আত্মজীবনী লিখা আরম্ভ করেছেন ৷

বার্ট্রেন্ড রাসেলের ব্যক্তি পরিচয় হচ্ছে -তিনি ১৮৭২ সালের ১৮ মে ব্রিটেনের ওয়েলস -এর ট্রেলেক নামক স্থানে জন্ম গ্রহণ করেন এবং চার বছর বয়সের মধ্যেই পিতা ও মাতা হারিয়ে পিতামহ ও পিতামহীর কাছে মানুষ হন ৷অবশ্য তার পিতামহও তার ৬ বছর বয়সে মৃত্যু বরন করেন । পরে পিতামহী তারে মানুষ করেছিলেন ৷ ইংলেন্ডের এক ঐতিহ্যমন্ডিত পরিবারের বংশধর রাসেলের পিতামহ লর্ড জন রাসেল উনিশ শতকের মধ্যভাগে দুইবার ইংল্যাণ্ডের প্রধানমন্ত্রী হয়েছিলেন ৷

রাসেল ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রিনিটি কলেজ থেকে গণিত ও দর্শনশাস্ত্রে প্রথম শ্রেণী অর্জন করেন এবং ৩১ বছর বয়স থেকে বিশ্বমানের গ্রন্থসমূহ রচনা আরম্ভ করেন ৷

১৮৯৪ সালে ২২ বছর বয়সে এ্যালিস পিয়ারসল স্মীথ কে বিয়ে করেন এবং ১৭ বছর তার সঙ্গে সংসার করার পর তাদের বিবাহবিচ্ছেদ ঘটে ৷ পরে ১৯২১ সালে ডোরা উইনফ্রেড ব্ল্যাককে বিয়ে করেন ৷ সে বিয়ে বেশীদিন ঠিকেনি ৷ তাই ১৯৩৫ সালে মিস প্যাট্রিসিয়া স্পেন্স নামক মহিলার সঙ্গে বিয়ে হয় ৷ কিত্তু তৃতীয় বারের মত এই দাম্পত্য জীবনও রাসেলের টিকে নি ৷ শেষ পর্যন্ত ৮০ বছর বয়সে ১৯৫২ সালে এডিথ ফিন্সকে বিয়ে করেন এবং তাকে নিয়ে তার জীবনের শেষদিন পর্যন্ত শান্তিপূর্ণ ও সুখের দাম্পত্য জীবন যাপন করেন এবং ১৮ বছর সুখের সংসার যাপনের পর ৯৮ বছর বয়সে ১৯৭০ সালের ২ ফেব্রুয়ারী বার্ট্রেন্ড রাসেল মৃত্যুকে বরণ করেন ৷ ( তথ্যসুত্র- World Philosophy) 

 

এখানে বিজ্ঞান ও নাস্তিকতার সাথে সম্পৃক্ত প্রায় শতাধিক বই এর দেখা পাবেন। ক্লিক করুন এখানে-  আমার সংগ্রহ

 

hsbd bg