সেপিও সেক্সুয়াল এলিয়েন
মূলপাতা বিজ্ঞানজেনেটিক্স সেপিও সেক্সুয়াল এলিয়েন

সেপিও সেক্সুয়াল এলিয়েন

লিখেছেন কাজল আক্তার বৃষ্টি
104 বার পঠিত হয়েছে

সেপিও সেক্সুয়াল এলিয়েন; কেনো মানসিক সুস্থ্যতার সেক্সুয়াল সিলেকশন ইন্ডিকেটর এক্সট্রা টেরিস্টিয়াল ইন্টিলিজেন্টের বিবর্তনকে ড্রাইভ করবে?

 

ইউনিভার্সিটি অব নিউ ম্যাক্সিকো, ইউ এস এ’র জেফরি মিলার মনে করেন মহাবিশ্বে যদি এক্সট্রা টেরিস্টিয়াল কোন ইন্টিলিজেন্সের অস্তিত্ব থেকে থাকে তবে তারা সেপিওসেক্সুয়াল।সাম্প্রতিক সেপিওসেক্সুয়ালিটি একটি বহুল আলোচিত ট্রপিক।হেটেরোসেক্সুয়াল, হোমোসেক্সুয়াল, ডেমিসেক্সুয়াল,এসেক্সুয়াল এমন অজস্র সেক্সুয়াল আচরণের মধ্যে সেপিওসেক্সুয়ালিটি খুবই ইন্টারেস্টিং।সেপিও সেক্সুয়ালিটি মানে হলো Sex for Intellectuality!কিন্তু আমরা সেলফিশ জিন থিওরি থেকে জানি, আমাদের জিনের উদ্দেশ্য অধিকসংখ্যক জেনেটিক্যাল কপি তৈরি ও তার রক্ষণাবেক্ষণ।আমাদের জিনের কাছে ইন্টেলেকচুয়ালিটির কোনো মিনিং নেই আর তাই ইন্টেলেকচুয়ালিটির প্রতি সেক্স ফিল করার কোনো প্রশ্নই আসেনা, তার কাছে গুরুত্বপূর্ণ বায়োলজিক্যাল সেক্স।এ দৃষ্টিকোণ থেকে চিন্তা করলে সেপিও সেক্সুয়ালিটির কনসেপ্টটি সম্পূর্ণ ডিভাঙ্ক হয়ে যায়!কিন্তু বিবর্তনে “ফিটনেস ইন্ডিকেটর” বলতে একটি ব্যাপার আছে!আমাদের পূর্বপুরুষরা যদি কোন অস্বাস্থ্যকর নারীর সাথে সেক্স করতো তবে তার কাছ থেকে যে সন্তান জন্মগ্রহণ করতো তার Chance of Survival ছিলো সীমিত।আর এ জন্যে প্রাণীদের স্বাস্থ্যকর মেট নির্বাচন করার জন্যে “ফিটনেস ইন্ডিকেটর” এর প্রয়োজন ছিলো যার মাধ্যমে তারা Law of Conservation অনুসারে অপেক্ষাকৃত কম সময় ও শক্তি খরচ করে খুব সহযে তাদের যোগ্যতম সঙ্গীকে নির্বাচন করতে পারে যার ভেতর সন্তান উৎপাদন করার সম্ভাবনা সার্বাধিক আর এ জন্যে এভোল্যুশন প্রজাতির মাঝে ফিটনেস ইন্ডিকেটর Evolve করে।ফিটনেস ইন্ডিকেটর হলো এমন এক ধরণের সিগনাল যার মাধ্যমে নারী পুরুষকে তার জেনেটিক্যাল অবস্থা জানায়(Vice Versus ), আর পুরুষের মস্তিষ্কে তার জেনেটিক্যাল শিক্ষা অনুযায়ী সাব-কনসাসলি সেটা রিয়েলাইজ করতে পারে এবং তার প্রতি আকৃষ্ট হয়।যেমন-ময়ুর তার লম্বা লেজের মাধ্যমে তার সঙ্গীর কাছে ফিটনেসের সিগনাল প্রেরণ করে।ফিটনেস সিগনাল গেম থিওরেটিক সিগনালিং প্রিন্সিপ্যালের উপর নির্ভরশীল।ফিটনেস ইন্ডিকেটরকে হতে হবে বড়,জটিল,ব্যায়বহুল ও সুনির্দিষ্ট যা দূর্বল বা ফেইক অর্গানিজমের বিবর্তনকে অবজ্ঞা করে।বিভিন্ন প্রকারের ফিটনেস ইন্ডিকেটরের মধ্যে রয়েছে শিকারীদের ভয় দেখানো, প্রতিযোগীদের প্রতিহত করা এবং আন্তরিক প্যারেন্টাল ক্যায়ার ইত্যাদি।কিন্তু ফিটনেস ইন্ডিকেটরের মধ্যে সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য যেটা বিকশিত হয়েছে সেটি সেক্সুয়াল সিলেকশনকে প্রভাবিত করে।একজন সঙ্গী অন্য আর একজনের সবচেয়ে Informative Fitness Indicator দেখেই তার প্রতি আকর্ষণ প্রকাশ করে যার মাধ্যমে সে বুঝতে পারে ঐ সঙ্গীর সন্তান জন্মদান ও লালন পালনের ক্যাপাসিটি সার্বাধিক।(ব্যাপারটি সাব-কনসাসলি ঘটে যার কারণ আমরা বুঝতে পারিনা, যেটাকে আমরা অযৌক্তিক প্রেম বলি)।

সেক্সুয়ালি সিলেক্টেড ফিটনেস ইন্ডিকেটরের মধ্যে কিছু আছে অর্নামেন্টস বা অলঙ্কার।কিছুকিছু মাছ তাদের শরীর থেকে আল্ট্রাভায়োলেট রশ্নি প্রতিফলিত করতে পারে যা দেখে তার সঙ্গী আকৃষ্ট হয়।বায়োলজিক্যাল অর্নামেন্টস ছাড়াও এমন কিছু সাইকোলজিক্যাল অর্নামেন্টস আছে যার মাধ্যমে মেন্টাল ফিটনেসের সিগনাল সেন্ড করা হয়।যেমন- পাখিরা শিশ দিয়ে তার সঙ্গীদের আকৃষ্ট করে এবং মানুষ মিউজিকের মাধ্যমে।আমাদের পূর্বপুরুষরা মেন্টাল ফিটনেসের সিগনাল সেন্ড করার জন্যে ইন্টিলিজেন্ট,ল্যাঙ্গয়েজ,ক্রিয়েটিভিটি এবং হিউমারকে ব্যাবহার করতো।ময়ুর তার লম্বা পেখমের মাধ্যমে, নারীরা তাদের ভরাট নিতম্ব বা HR এর মাধ্যমে যেমন তাদের বায়োলজিক্যাল ফিটনেসের সিগনাল সেন্ড করতো ঠিক একইভাবে সেক্সুয়াল সিলেকশনে সাইকোলজিক্যাল ফিটনেসের প্রতিনিধিত্ব করতো আর্ট,মিউজিক, ইন্টিলিজেন্ট,ক্রিয়েটিভিটি এবং সেন্স অব হিউমার ইত্যাদি।আর একজন ইন্টেলেকচুয়াল পারসনের পক্ষে সম্ভব তার তার ফিউচার জেনেরেশনকে সঠিকভাবে রক্ষণাবেক্ষণ করা!ঠিক এ জন্যেই হয়তো বিবর্তন আমাদের মাঝে ইন্টেলেকচুয়ালিটি’ র প্রতি একপ্রকার সাবকনসাস সেক্স তৈরি করে রেখেছে!যেটাকে সেপিও সেক্সুয়ালিটি বলা হয়!সেপিও সেক্সুয়ালরা ইন্টিলিজেন্ট ডিজাইনের উপর ভিত্তি করে আকৃষ্ট হয় যা তাদের মস্তিষ্কে ডোপামিন, সেরেটোনিন এবং নরপিনপেরিন হরমোন তৈরি করে যেটাকে আমরা প্রেম বলি!

সেপিও সেক্সুয়াল সিলেক্টেড মেন্টাল ফিটনেস ইন্ডিকেটরকে আমাদের কাছে ডি এন এ-বেসড টেরিস্টিয়াল বায়োলজির মতো মনে হতে পারে।প্রতিটি জেনেটিক ট্রান্সমিশন সিষ্টেমে রেপ্লিকেশন ফেডাল্টি এবং র‍্যান্ডম মিউটেশনের মধ্যে ব্যালান্স করা হয়।কমপ্লেক্স অর্গাজমের ক্ষেত্রে এটা নির্ভর করে বিশাল মাপের জেনেটিক্যাল ইনফরমেশনের উপর, অধিকাংশ মিউটেশন ঘটে নিউট্রাল অথবা ক্ষতিকর তাদের আবাস্থল,শারীরিক অবস্থা, জেনেটিক ইনফ্রাস্ট্রাকচার এবং পেনোটাইপিক ফর্ম নির্বিশেষে।অন্য আর একজন ব্যাক্তির মাঝে যদি রেগুলার জিন মিক্সিং সম্ভব না হয় তবে তারা বংশানুক্রমে মিউটেশনাল মেল্ট ডাউনের শিকার হয়, যেটাকে এন্থ্রোপিক ক্যাটাস্ট্রপি বলে এবং তারা খুব শীঘ্রই বিলুপ্ত হয়ে যায়।এরর মিউটশনকে আদর্শ প্রদান ও সেক্সুয়াল সমন্বয়ের মাধ্যমে প্রতিটি ব্যাক্তির মধ্যে জেনেটিক্যাল ভেরিয়েশন তৈরি হয়।নির্দিষ্ট সেক্সুয়াল প্রতিলিপি এবং জেনেটিক ভেরিয়েশনের কারণে অর্গানিজমরা পুরস্কার পায় বিশেষ ফিটনেস ইন্ডিকেটরের প্রতি মনযোগী হওয়ার মাধ্যমে।আর এ জন্যে ফিটনেস ইন্ডিকেটরকেও আরো বড়, জটিল,সুস্পষ্ট ও আকর্ষণীয় হতে হয়।

জ্ঞান ও কমিউনিকেশনের ক্ষমতা বিশেষভাবে ইনফরমেটিভ ফিটনেস ইন্ডিকেটর তৈরি করে যাদের আভ্যন্তরীণ কম্পিউটেশনাল সিষ্টেম জটিল, সুনির্দিষ্ট অতএব এটা বিশেষভাবে ক্ষতিকর মিউটেশনের জন্যে অরক্ষিত, এটি বিশেষভাবে ফিটনেসের ব্যাপারে ইনফরমেটিভ এবং এতে করে তারা একে অপরের কাছে সিগনাল পাঠাতে পারে যা এভোল্যুশনালি তাদের ইন্টেলেকচুয়ালিটি বৃদ্ধি করে।অতএব আমরা প্রত্যাশা করতেই পারি এক্সট্রাটেরিস্টিয়াল ইন্টিলিজেন্টরা এমন একটি লাইফ ফর্ম থেকে এসেছে যারা সেক্সুয়ালি বংশবৃদ্ধি করে, যারা তাদের সঙ্গীর ব্যাপারে খুঁতখুঁতে এবং তারা তাদের মেন্টাল ফিটনেস সেপিও সেক্সুয়াল এলিয়েন ইন্ডিকেটরের প্রতি আকৃষ্ট!!

সেপিও সেক্সুয়াল এলিয়েন; তথ্যসূত্র: 

আমাদের প্রাসঙ্গিক পোস্টগুলো পড়ুন;

আরও পড়ুন

Leave A Comment...

হাইপারস্পেস
চিন্তা নয়, চিন্তার পদ্ধতি জানো...!