Can't find our books? Click here!

ডোপামিন সার্কিটের প্রতারণা কেন বিবর্তিত হয়েছিল?

The Molecule of More: How a Single Chemical in Your Brain Drives Love, Sex, and Creativity―and Will Determine the Fate of the Human Race . Part: Six

একটি পয়েন্টে এসে সবাই প্রশ্ন করে, কেন? কেন আমি যা করছি আমি তাই করছি? কেন আমি তাই পছন্দ করি যা আমি পছন্দ করি?

উপরের দিক থেকে এ প্রশ্নটির উত্তর সহজ মনে হয়: আমরা যা কিছু করি তার পেছনে একটি কারণ থাকে।  যখন শীত লাগে তখন আমি সুয়েটার পরিধান করি। আমরা ঘুম থেকে জাগ্রত হই এবং কাজে যাই কারণ আমাদেরকে বিল পরিশোধ করতে হবে। আমরা দাঁত ব্রাশ করি তাদের ক্ষয়রোধ করার জন্য। আমরা যা কিছু করি সবকিছুর পেছনে একটি উদ্দেশ্য থাকে।

কিন্তু সমস্যা তখনই সৃষ্টি হয় যখন আপনি প্রশ্নগুলো অন্যভাবে করেন। কেন আপনি উষ্ণতা চান? কেন আপনি বিল পরিশোধ করেন?  কেন আপনি দাঁতের ক্ষয়রোধ করতে চান? “এখন ঘুমাতে যেতে হবে।”  কেন? কারণ আপনার সকালে স্কুলে যেতে হবে.” কেন? আপনার শিক্ষা প্রয়োজন।  কিন্তু কেন?   কেন এসব?

দার্শনিক এরিস্টটল একই খেলা খেলেছেন কিন্তু  আরও সিরিয়াস উদ্দেশ্যে। তিনি দেখেছেন আমরা কোনকিছুর উদ্দেশ্যে যা কিছু খুঁজি তার কোন শেষ আছে কিনা কিন্তু তিনি ব্যর্থ হয়েছেন। আপনি কেন কাজে যান? আপনার কেন টাকা তৈরি করা প্রয়োজন? কেন আপনি বিল পরিশোধ করবেন? আপনি কেন চান ইলেক্ট্রিসিটি থাকুক? কোথায় এগুলোর শেষ? আমরা কী একদম উদ্দেশ্য ছাড়া কোনকিছু চাইতে পারি? এরিস্ট্রটল এই হোয়াই স্ট্রিং এর শেষ খুঁজে পেয়েছেন কেবল সুখে। আমরা যা কিছু করি সবকিছু কেবলমাত্র সুখের উদ্দেশ্যে।

এ উপসংহারে আসা আমাদের জন্য কঠিন।  আমরা যদি বিল পরিশোধ করতে পারি অথবা ইলেক্ট্রিসিটি পাই আমরা সুখী হই। আমাদের যদি স্বাস্থ্যকর দাঁত ও শিক্ষিত মন থাকে আমরা সুখী হই। আমরা যদি পেইন ফিল করি আমরা সুখী হই। কারণ পেইন আমাদের শরীরকে প্রিজার্ভ করে৷ আমরা যদি পেইন ফিল না করতাম আমরা আমাদের শরীরকে কেটে টুকরা টুকরা করে ফেলতাম। আমাদের বডি প্রিজার্ভ করা সম্ভব ছিল না। সুখ হলো আমাদের জীবনের পোলস্টার যা আমাদের জীবনকে গাইড করে। আপনার সামনে যদি কয়েকশত কোটি অপশন দেয়া হয় তবে আপনি সেই অপশনটি নির্বাচন করবেন যেটি আপনাকে সর্বোচ্চ সুখী করে। অথবা আমরা সেটি পছন্দ করিনা।

আমাদের মস্তিষ্ক আসলে সেভাবে নকশা করা হয়নি। অধিকাংশ মানুষ তার কেরিয়ারের কথা ভেবে কলেজ নির্বাচন করে কিন্তু এ নির্বাচনের পেছনে অন্য আর কিছু নয় কেবল এ অনুভূতি কাজ করে যে এটি সঠিক।  আর ঠিক তখন আমরা বসি, লজিক্যালি চিন্তা করি যেটি একটি ক্লান্তিকর ব্যাপার আর এর ফলাফল খুব কমই সন্তোষজনক। আমরা খুব কম সময়ই নিশ্চিত করে বলতে পারি যে আমি সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়েছি। তার থেকে বরং এটাই সবচেয়ে সহজ হয় যে আমি যা চাই তাই করতে থাকা। আর আমরা মূলত তাই করছি।

এবার পরবর্তী প্রশ্নটি আসে কেন আমরা কোনোকিছু চাই৷ এ প্রশ্নটির উত্তর নির্ভর করে কে এ প্রশ্নটি করছে: একজন ব্যক্তি হয়তো ধনী হতে চায় আর একজন হয়তো ভালো পিতা হতে চায়৷ আবার প্রশ্নটির উত্তর নির্ভর করে কখন আপনি প্রশ্নটি করছেন। প্রশ্নটি যদি ৭:০০ টায় করা হয় তবে আপনি ডিনার চান৷ এটি আপনাকে একথাও বলবে ১০ মিনিট ঘুমাও । মাঝেমধ্যে মানুষ তেমন কিছু চায়না,  অন্যসময় তারা একই মুহূর্তে অনেককিছু চায়৷ অধিকাংশ মানুষ যখন তারা একটি ডোনাট দেখে তারা এটি খেতে চায়৷ আবার অনেকে আছে যারা খেতে চায়না,  এখানে আসলে কী চলছে?

ইভোলিউশনারী টাইম স্ক্যালে আমাদের চাওয়া ও আকাঙখা খুলির নিচে মস্তিষ্কের অত্যন্ত প্রাচীন একটি অংশ থেকে তৈরি হয় যেটিকে বলা হয় ভেন্ট্রাল টেগমেন্টাল এরিয়া। অন্যান্য ব্রেন সেলের মত, এখানে যে সেলগুলো জন্মায় সেখানেও দীর্ঘ লেজ আছে যেগুলো মস্তিষ্কের ভেতর প্রবাহিত হয় যতক্ষণনা সেগুলো নিউক্লিয়াস অ্যাকুম্বেন্সে যায়৷ যখন এই দীর্ঘ লেজবিশিষ্ট সেলগুলো অ্যাক্টিভেট হয়, তারা নিউক্লিয়াস একুম্বেন্সে ডোপামিন রিলিস করে৷ যেটি আমাদের মস্তিষ্কের মোটিভেশনের সাথে সম্পৃক্ত অনুভূতি ড্রাইভ করে। এ সার্কিটের সায়েন্টিফিক টার্ম হলো মেসোলিম্বিক  পথ( Masolimbic Pathway)। যদিও খুব সিম্পলি একে ডোপামিন ডিজায়ার সার্কিট বলা হয়।

ডোপামিন সার্কিট প্রথম বিবর্তিত হয় আমাদের টিকে থাকার সাথে সম্পৃক্ত আচরণ ও প্রজননকে নেতৃত্ব প্রদান করার জন্য।। এটি এমন একটি ডিজায়ার সার্কিট যখন আপনি টেবিলের উপর একটি ডোনাট দেখবেন তখনই অ্যাকটিভেট হয়। যা কিছু বিবর্তন অথবা লাইফ সাসটেইনিং স্ট্যান্ডপয়েন্ট থেকে আকর্ষণীয় সে সব বস্তু দেখলে এ সার্কিট সক্রিয় হয়। আপনি যখন এ ধরণের আকর্ষণীয় কোন বস্তু দেখবেন আপনার ক্ষুধা  লাগুক অথবা না লাগুক এই সার্কিট অ্যাক্টিভেট হবে। এটাই হলো ডোপামিনের প্রকৃতি এটি সবসময় অধিক পরিমাণ অর্জনের দিকে মনোনিবেশ করে এবং ভবিষ্যতের দিকে চোখ রাখে৷। ক্ষুধা হলো এমনকিছু যা হেয়ার এন্ড নাউ’ তে সংঘটিত হয়। এটি সবসময় ভবিষ্যতের দিকে আপনার জাগরণকে ধরে রাখে৷ কে জানে কখন পরবর্তী সময়ে খাবার পাওয়া যাবে? এটি আমাদের ইভোলিউশনারী অ্যানসেস্টরদের দৃষ্টিকোণ থেকে চিন্তা করলে সেন্স তৈরি করবে যারা বেশিরভাগ সময় উপোস থাকত।

প্রতিটি জীবের জন্য,  তার ভবিষ্যতের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ লক্ষ্য হলো কখন খাবার আসবে সে ব্যাপারে জাগ্রত থাকা৷ আর এজন্য ডোপামিন সিস্টেম কম বা বেশি সবসময় আসক্ত থাকে৷ এটি আপনার চারপাশের পরিবেশকে নিরবিচ্ছিন্নভাবে স্ক্যান করতে থাকে খাদ্য, বাসস্থান, প্রেম ও অন্যান্য রিসোর্স খুঁজে পাওয়ার জন্য যাতে করে আমাদের ডিএনএ নিজেকে রেপ্লিকেট করতে পারে৷ যখনই এটি এমনকিছু খুঁজে পায় যা পটেনশিয়ালি মূল্যবান ডোপামিন চালু হবে, আপনাকে মেসেজ পাঠাবে জাগ্রত হওয়ার জন্য৷ মনোযোগ দেয়ার জন্য৷ এটি গুরুত্বপূর্ণ।  এটি এই মেসেজ প্রেরণ করে আপনার মধ্যে আকাঙ্ক্ষার অনুভূতি তৈরি করার মাধ্যমে এবং মাঝেমাঝে এক্সাইটম্যান্ট।  আপনার মধ্যে যে সেন্সসেশন অব ওয়ান্টিং বা চাওয়ার অনুভূতি কাজ করে এটি আপনার তৈরি করা কোনো নির্বাচন নয়। এটি হলো আপনি যা কিছুর মুখোমুখি হচ্ছেন তার প্রতিক্রিয়া।

একজন ব্যক্তি যখন হাঁটতে হাঁটতে বার্গারের কাছে যায় তখন তার মস্তিষ্কে অন্যান্য প্রায়োরিটিও কাজ করে৷ কিন্তু ডোপামিন তার মধ্যে দুর্দমনীয় আকাঙখা তৈরি করে যার ফলে সে বার্গার পছন্দ করতে বাধ্য হয়। যদিও ফোকাস আলাদা। তবে এটি ঠিক একই ম্যাকানিজম যা আমাদের মস্তিষ্কে হাজার হাজার বছর পূর্বেও কাজ করতো। কল্পনা করুন, আমাদের কোন একজন পূর্বসূরি আফ্রিকার সাভানায় হাঁটছে। এটি একটি পরিস্কার সকাল। আকাশে সূর্য উদিত হয়েছে, পাখিরা কোলাহল করছে, সবকিছু গতানুগতিক ভাবে প্রবাহিত হচ্ছে যেমন সবসময় ছিল। সে একা একা হাঁটে,  কোনোকিছু না দেখেই তার মন এদিকওদিক ঘুরে বেড়ায়। যখন সে আকস্মিক একটি ঝোপের উপর হোঁচট খায় সে দেখে ঝোপের নিচে লুকিয়ে আছে বেরি৷ সে এই ঝোপটি পূর্বে আরও কয়েকশত বার দেখেছে কিন্তু তখন সেখানে কোন বেরি ছিল না। আর এজন্য প্রথম যখন সে ঝোপের দিকে স্লিপ করেছিল তার মন ছিল অন্য কোথাও কিন্ত এখন সে মনোযোগের সাথেই ঝোপের দিকে তাকিয়ে আছে। তার মনোযোগ তীব্র হতে থাকে কেননা তার চোখ ঝোপের সামনেও ও পেছনে স্ক্যান করছে। সমস্ত বিস্তারিত জানার চেষ্টা করছে। তার মধ্যে এক্সাইটম্যান্ট তৈরি হয়েছে।

তার ভবিষ্যৎ কিছুটা নিরাপদ হয় কারণ সবুজ ও অন্ধকার পাতার নিচে ফল তৈরি হয়। আর ঠিক তখন আমাদের মস্তিষ্কের আকাঙখার সার্কিট অ্যাকশনে আসে। এরপর  থেকে যেখানেই তারা এরকম ঝোপ দেখবে, আমাদের মস্তিষ্কে ডোপামিন রিলিস হবে তাদেরকে আরও অ্যালার্ট করার জন্য এবং যা তাকে উত্তেজনার ঈশারা দেবে। তাকে সবচেয়ে বেশি অনুপ্রাণিত করবে সে জিনিস অর্জন করার জন্য যা তাকে জীবিত থাকতে সহযোগিতা করবে। আর তখন একটি গুরুত্বপূর্ণ মেমরি তৈরি হবে: এটি গুরুত্বপূর্ণ কারণ এটি আপনার টিকে থাকার সাথে জড়িত। এটি গুরুত্বপূর্ণ কারণ এটি আপনার মধ্যে ডোপামিন রিলিসকে ট্রিগার করেছিল। কিন্ত কী ঘটবে যদি ডোপামিন আউট অব কন্ট্রোলে চলে যায়?

আমরা যদি সুবিস্তৃত সেন্স থেকে কোনোকিছুকে গুরুত্বপূর্ণ বলি তবে অন্য একটি উপায়ে আমরা বলি যে এটি ডোপামিনের সাথে সংযুক্ত। কারণ অনেককিছুর মধ্যে, ডোপামিন হলো একটি প্রাথমিক সতর্কতা ব্যবস্থা যা আমাদেরকে কোনকিছু আবির্ভাবের জন্য সাহায্য করতে পারে। কারণ ডোপামিন হলো অগ্রিম সতর্ককারী সিস্টেম যা আমাদেরকে সার্ভাইভ করতে সহযোগিতা করে। যখন আমাদের অব্যাহত অস্তিত্বের জন্য দরকারী কোনোকিছু উপস্থিত হয়, আমাদের এটা সম্পর্কে চিন্তা করার কোন প্রয়োজন নেই। ডোপামিন আমাদের তৈরি করে এ মুহূর্তে আমরা কী চাই। এটা কোন ব্যাপারই নয় যে, আমাদেরকে এটা পছন্দ করতে হবে অথবা এ মুহূর্তে এটি আমাদের প্রয়োজন। ডোপামিন কোন কেয়ার করেনা। ডোপামিন হলো লিটল ওল্ড লেডির মত যে সবসময় টয়লেট টিস্যু ক্রয় করে। তার মানসিকতা এমন যে আপনার কাছে কখনোই পর্যাপ্ত টয়লেট পেপার নেই। ঠিক একই কাজটা ডোপামিনও করে। কিন্ত টয়লেট পেপারের পরিবর্তে, ডোপামিন আপনাকে এমন কিছু ধারণ করতে ও জমা করতে সাহায্য করে যা আপনাকে জাগ্রত রাখে।

এটাই আপনার নিকট ব্যাখ্যা করতে পারে কেন একজন মানুষ হামবার্গার চায় যদিও সে ক্ষুদার্ত নয়। এটা ব্যাখ্যা করতে পারে কেন আপনি এক নারীতে সন্তুষ্ট নয়? যদিও কেবল এটা আপনাকে কয়েক মিনিট অথবা ঘন্টার জন্য সুখী করবে? এছাড়া এটি আমাদের নিকট আরও একটি বিষয় ব্যাখ্যা করতে পারে কেন আমরা কারো কারো নাম অন্যদের তুলনায় বেশি মনে রাখতে পারি? আমরা একটা কিছু স্মরণ রাখার জন্য কত রকমের ট্রিক্স করি।  যেমনঃ পরবর্তী কনভারসেশনে তার নাম মনে রাখার জন্য। কিন্তু তারপরও অনেক কষ্টের পর আবার আমাদের মেমরি উবে যায়। যে সকল মানুষ আমাদের জীবনকে এফেক্ট করে আমরা তার নাম মনে রাখি আর আমরা তাকে তাড়াতাড়ি ভুলে যাই যে আমাদের উপেক্ষা করে। যে ব্যক্তি আপনার সাথে পার্টিতে ছিনালি করেছে তার স্মৃতি আপনার অন্যদের তুলনায় বেশি মনে থাকবে। ঠিক একইভাবে পুরুষ ইঁদুর ধাঁধার সঠিক রুট মনে রাখে যদি অপরপ্রান্তে কোন সেক্সচুয়ালি রিসেপ্টিভ মেল থাকে। মাঝেমাঝে মনোযোগের তীব্রতা এত বেশি হয় যে আপনার মনোযোগ সেখানেই আটকে যায় কোন ব্যাপারই না এজন্য সেটি করতে আপনার কী পরিমাণ ক্ষতি শিকার করতে হয়। একজন ব্যক্তির কপালে বেরেটা ৯ হ্যান্ডগান ঠেকানো হয়েছিল একবার। পরবর্তী সময়ে তাকে তার আক্রমণকারী সম্পর্কে প্রশ্ন করা হয়। সে বলে, আমি কেবল বন্ধুক সম্পর্কে বলতে পারবো, তার চেহারা আমার মনে নেই।


অধিক সাধারণ পরিস্থিতিতে, ডিজায়ার সার্কিটে ডোপামিনের অ্যাকটিভেশন শক্তি, উল্লাস ও আশা প্রকাশ করে। এটি অনুভব করতে ভালোলাগে। প্রকৃতপক্ষে,  অধিকাংশ মানুষ সারাজীবন এ অনুভূতি অনুসন্ধান করে। প্রত্যাশার অনুভূতি। জীবনকে আর একটু ভালো করার অনুভূতি। আপনি সুস্বাদু খাবার খেতে পারেন, পুরাতন কোন বন্ধুর সাথে দেখা করতে পারেন, বড় আকারের কোন সেল হতে পারে আপনার অথবা প্রেস্টিজিয়াস কোন পুরস্কার পেতে পারেন৷ ডোপামিন আপনার কল্পনাকে টার্ন করতে পারে এবং গোলাপি রঙের সব ভবিষ্যৎ বাস্তবতার ভার্সন প্রদর্শন করে।


কী ঘটবে যখন ভবিষ্যৎ বর্তমানে পরিণত হয়? যখন ডিনার আপনার মুখে প্রবেশ করে অথবা আপনার প্রেমিকা আপনার বাহুতে শুয়ে থাকে? আপনার উত্তেজনা, উল্লাস এবং শক্তি উড়ে যায়। ডোপামিন শাট ডাউন করে।  ডোপামিন সার্কিট বাস্তব জগতের অভিজ্ঞতা প্রসেস করেনা। এটি শুধুমাত্র কাল্পনিক সম্ভাবনা দেখে। অধিকাংশ মানুষের জন্য এটি একটি বিপর্যয়। তারা ডোপামিনার্জিক স্টিমুলেশন দ্বারা এতই আকৃষ্ট যে তারা বর্তমান থেকে পালিয়ে যায় এবং তারা তাদের কাল্পনিক জগতে আশ্রয় গ্রহণ করে। আগামীকাল কী হবে? তারা খাবার চিবাতে চিবাতে প্রশ্ন করে, তারা অধিক আগ্রহে যে খাবারটি সংগ্রহ করেছে সে খাবারটির দিকেও তাদের তেমন খেয়াল থাকেনা।।আশা নিয়ে ভ্রমণ করা গন্তব্যে পৌঁছে যাওয়ার চেয়ে গুরুত্বপূর্ণ এ মূলমন্ত্রে ডোপামিন উৎসাহী।  ভবিষ্যৎ বাস্তব নয়।  এটি কেবল বান্ডেল অব পসিবিলিটি তৈরি করে যা আমাদের মনে অবস্থান করে। এ সম্ভাবনাগুলো আদর্শিক হতে পারে, আমরা সাধারণত মাঝারি ফলাফল আশা করিনা। আমরা পসিবল ওয়ার্ল্ডের সবচেয়ে শেরাটি চিন্তা করি এবং এটা আমাদের ফিউচারকে আরও আকর্ষণীয় তোলে। অন্যদিকে,  বর্তমান বাস্তব। এটি মূর্ত। এটি অভিজ্ঞতালব্ধ, কাল্পনিক নয়। বাস্তব অভিজ্ঞতার জন্য H&N বা হেয়ার এন্ড নাউ নিউরোট্রান্সমিটার প্রয়োজন। সেগুলির প্রশংসা করার জন্য, সেগুলোর নির্যাস, রঙ, গঠন ও সুগন্ধী অথবা সে অভিজ্ঞতা যা আমরা প্রেমিকার সাথে সময় কাটানোর সময় অর্জন করেছি।

Reference:the molecule of more: how a single chemical in your brain drives love, sex, and creativity–and will determine the fate of the human race

আগের পর্ব: