Can't find our books? Click here!
আপনার ৯৯.৯৯৯৯৯৯৯ শূন্যস্থান!

আপনার ৯৯.৯৯৯৯৯৯৯ শূন্যস্থান!

অনেক ওয়েবসাইট আপনাকে বলবে, আমরা যখন বস্তুকে টাচ করি তখন তখন দুটি বস্তুর( যেমন- আপনার হাত ও দেয়াল) ইলেক্ট্রন একে অন্যকে বিকর্ষণ করে। হাজার হাজার ওয়েবসাইট আপনাকে ঠিক এ তথ্যটিই দেবে। কিন্তু মূলত এটা সঠিক নয়।

কোনোদিন আপনার নিজেকে উল্লেখযোগ্য কোনো ব্যক্তি মনে হতে পারে। হয়তো আপনার অনেক বন্ধু আছে অথবা কোনো গুরুত্বপূর্ণ কাজ অথবা বিশাল এক গাড়ি। হয়তো আছে দেবি আফ্রোদিতির মতো সুন্দর কোনো প্রেমিকা! বন্ধু, অফিস, কার ও আপনার নিজেকে বিলিয়ন গ্রহ নক্ষত্রের মাঝে দেখে আপনি বিনয়ী হয়ে উঠতে পারেন কিন্তু এ সবকিছুর ৯৯.৯৯৯৯৯৯৯ ভাগই শূন্যস্থান।

একজন নগ্ন ক্যাপটিভ নারী যে আপনার দিকে তাকিয়ে আছে সে আর কিছুই নয় এম্পটিস্পেসের বিভ্রান্তিকর সংগ্রহ ব্যাতীত কিন্ত আপনি যখন তাকে স্পর্শ করেন কেনো এ এম্পটিস্পেসকে এত কোমল ও নমনীয় মনে হয়?

আপনার ৯৯.৯৯৯৯৯৯৯ শূন্যস্থান!

পরমাণুর আকার নির্ভর করে ইলেক্ট্রনের লোকেশনের উপর। নিউক্লিয়াস ও পরমাণুর সেলের মাঝখানে ঠিক কতটা জায়গা আছে। নিউক্লিয়াস যদি একটি চিনা বাদামের আকার হয়, তাহলে পরমাণু হবে বেসবল স্টেডিয়ামের আকারের। আমরা যদি আমাদের শরীরের পরমাণুর ভেতরের সমস্ত ডেডস্পেস সরিয়ে ফেলি, তাহলে আমরা একটি ধুলিকণার সমান হয়ে যাব এবং সমস্ত মানব সভ্যতাকে একটি সুগার কিউবের ভেতর ঢুকিয়ে দেয়া সম্ভব হবে । যদি সমস্ত মহাবিশ্ব ও আমি ৯৯.৯৯৯৯৯৯৯ শতাংশই শূন্যস্থান হয়ে থাকে, তবে এখানে ভর কোথায় থেকে আসে? আর কেনো আমাদের শরীরের শূন্যস্থান দেয়ালের শূন্যস্থানের সাথে ধাক্কা খায়? শূন্যস্থানের ভেতর কেনো শূন্যস্থান মিশে যেতে পারেনা?

আপনার ৯৯.৯৯৯৯৯৯৯ শূন্যস্থান!

শক্তি! একদম বেসিক পর্যায়ে আমরা সবাই এটমের তৈরি, যা ইলেক্ট্রন, প্রোটন ও নিউট্রন দ্বারা গঠিত। যেগুলো আমাদের ভরের সিংহভাগ ধারণ করে। এগুলো কোয়ার্ক নামক মৌলিক কণার ত্রয়ী দিয়ে তৈরি। কিন্তু কোয়ার্কের ভর, প্রোটন ও নিউট্রনের ভরের অত্যন্ত ক্ষুদ্র একটি অংশমাত্র৷। এবং এ কোয়ার্কগুলোকে একসাথে যে গ্লুওন ধরে রাখে সেটিও সম্পূর্ণ ভরহীন। অজস্র বিজ্ঞানী বিশ্বাস করেন, আমাদের শরীরের সকল ভর আসে কোয়ার্কের কাইনেটিক এনার্জি ও গ্লুওনের বাইন্ডিং এনার্জি থেকে। অতএব যদি মহাবিশ্ব সামগ্রিকভাবে এম্পটিস্পেস হয় কেনো আমাদের কাছে কোনোকিছুকে সলিড মনে হচ্ছে? এম্পটিস্পেস একসাথে জড়ো হয়ে আমাদের শরীর, দেয়াল, বৃক্ষ ও নভোমণ্ডল তৈরি করে?

আপনার ৯৯.৯৯৯৯৯৯৯ শূন্যস্থান!

যদি আমাদের পরমাণুর অধিকাংশই স্পেস হয় তবে কেনো আমরা ভুতের মত স্পেসের ভেতর দিয়ে অদৃশ্য হয়ে যেতে পারিনা? কেনো আমাদের গাড়ি রাস্তায় পথ চলার সময় পৃথিবীর কেন্দ্রে ডুবে গিয়ে অন্যপাশে দৃশ্যমান হয়না? কেন যখন আমরা হ্যান্ডসেক করি তখন একটি হাত অন্য হাতকে ছেদ করেনা? চলুন, আমরা পুনরায় সংশোধন করি এম্পটিস্পেস বলে আমরা কি জানি। আসলে স্পেস সত্যি সত্যি এম্পটি নয়। এটি ওয়েব ফাংশন ও অদৃশ্য কোয়ান্টাম ফিল্ড দ্বারা মুষ্ঠিবদ্ধ। আপনি যদি এটমের ভেতরের এম্পটিস্পেস সম্পর্কে বুঝতে চান তবে আপনি আপনার ঘরের ঘূর্ণায়মান ব্লেডের ইলেক্ট্রিক ফেনের কথা চিন্তা করুন। যখন আপনার ইলেক্ট্রিক ফেনটি স্থির থাকে, আপনি বলতে পারবেন যে, পাখাটির ভেতর প্রচুর পরিমাণ জায়গা খালি। আপনি খুব সহজে দুটি পাখার মাঝের স্পেসে হাত ঢুকিয়ে দিতে পারবেন। আপনার আঙুল কিছুর উপস্থিতিই ফিল করবেনা শূন্যতা ছাড়া। কিন্তু যখন পাখাটি চালু করা হয় গল্প বদলে যায়। আপনি যখনই শূন্যস্থানে আপনার হাত রাখবেন আপনার হাত ব্লেডের আঘাতে ক্ষতবিক্ষত হয়ে যাবে। প্রকৌশলগতভাবে ইলেক্ট্রন হলো পয়েন্ট সোর্স। যার মানে তাদের কোনো আয়তন নেই। কিন্তু তাদের একটি ওয়েব ফাংশন আছে যা পরমাণুর সুন্দর একটা অংশই দখল করে রাখে। Read more: সিমেট্রি ব্রেক-আপ ও হিগস বোসন


কিন্তু কোয়ান্টাম মেকানিক্স অদ্ভুত, আয়তনহীন পার্টিকেল একইসাথে ও একইসময় পরমাণুর ভেতরের শূন্যস্থানের সর্বত্রই উপস্থিত থাকে। একটি ইলেক্ট্রনের এটমের চারপাশে শা শা করে ছুটে চলে এবং স্পেসের একটি নির্দিষ্ট অংশ তাদের ওয়েব ফাংশন দ্বারা দখল করে রাখে। অনেকটা ইলেক্ট্রিক ফ্যানের ডানার সমরূপ। আর এটি খুবই বেদনাদায়ক অনুস্মারক হতে পারে যে, যা আপনার কাছে এম্পটিস্পেস মনে হয় তা বেশ শক্ত মনে হতে পারে।

আপনি কী এখন বসে আছেন? বেশ! আসলে আপনি বসে নেই কারণ আপনার নিতম্ব চেয়ার স্পর্শ করছেনা। যেহেতু পরমাণুর মাংস তার নিউক্লিয়াসে উপস্থিত তাই আপনি যখন কাউকে স্পর্শ করছেন আপনি তখন তার পরমাণুকে স্পর্শ করছেন না। আপনি যা অনুভব করছেন তা হলো আপনার ইলেক্ট্রনের ম্যাগনেটিক বল যা চেয়ারের ইলেক্ট্রনদের দূরে ঠেলে দিচ্ছে। অনেক অনেক বেশি টেকনিক্যাল সেন্স থেকে আপনি আসলে চেয়ারে বসে নেই আপনি চেয়ারের কিছুটা উপরে ভাসমান।। অতএব, আপনি হলেন একটি এম্পটি মহাবিশ্বের এম্পটি গ্রহের একটি বিভ্রান্তিকর খালি জায়গার সংগ্রহ। তবে আপনার অন্তত একজন প্রেমিকা আছে!

Important Note:

অনেক ওয়েবসাইট আপনাকে বলবে, আমরা যখন বস্তুকে টাচ করি তখন তখন দুটি বস্তুর( যেমন- আপনার হাত ও দেয়াল) ইলেক্ট্রন একে অন্যকে বিকর্ষণ করে। হাজার হাজার ওয়েবসাইট আপনাকে ঠিক এ তথ্যটিই দেবে। কিন্তু এটা সঠিক নয়। মূলত, ইলেক্ট্রনের কোনো আয়তন নেই। এটি জিরো ডায়মেনশনাল নেগেটিভ এনার্জির একটি ফ্লেক বা কণা মাত্র যেটি এটম ও মলিকিউলের চারপাশে মেঘের মত অবস্থান করে। কোয়ান্টাম মেকানিক্সের আইন এটম ও মলিকিউলের চারপাশে তাদের নির্দিষ্ট শক্তি স্তরে লিমিট করে দেয়। আপনি যখন একজন নারীকে হাত দিয়ে স্পর্শ করেন তখন এটি তার পরমাণুর ইলেক্ট্রনকে ফোর্স করে এক স্তর থেকে অন্য স্তরে চলে যাওয়ার জন্য। আর এজন্য আপনার হাতের মাংসপেশি থেকে শক্তি প্রয়োজন হয়। যেটাকে আপনার মস্তিষ্ক ব্যাখ্যা করে বস্তুর সলিডিটি হিসেবে।

এসইইউঃ আপনার ৯৯.৯৯৯৯৯৯৯ শূন্যস্থান! /আপনার ৯৯.৯৯৯৯৯/ আপনার ৯৯.৯৯৯৯৯৯৯ শূন্যস্থান! ৯৯ শূন্যস্থান! /আপনার ৯৯.৯৯৯৯৯৯৯ শূন্যস্থান!